কবুতরের পোলাও

Posted in বিরিয়ানি ও খিচুড়ি


উপকরণ : পোলাওয়ের চাল ১ কেজি, কবুতর ৬টি, ঘি আধা কাপ, তেল ১ কাপ, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পোস্তদানা বাটা ২ টেবিল চামচ, বাদাম বাটা ২ টেবিল চামচ, টক দই আধা কাপ, মিষ্টি দই সিকি কাপ, দুধ ১ কাপ, পেঁয়াজ বাটা সিকি কাপ,

পেঁয়াজ কুচি ২ কাপ, জায়ফল-জয়ত্রী গুঁড়া আধা চা-চামচ, গরম মসলার গুঁড়া ১ চা-চামচ, সাদা গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, মাওয়া গুঁড়া সিকি কাপ, দারুচিনি ৮ টুকরা, এলাচ ৮টি, লবঙ্গ ৬টি, তেজপাতা ২টি, জাফরান আধা চা-চামচ, গোলাপজল ২ টেবিল চামচ, পেস্তাবাদাম কুচি ২ টেবিল চামচ, কিশমিশ ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ ৫-৬টি, আলুবোখারা ৮-১০টি।


প্রণালি : চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। ২ টেবিল চামচ দুধ ও গোলাপজলে জাফরান ভিজিয়ে রাখতে হবে। প্রতিটি কবুতরের চামড়া ছাড়িয়ে ধুয়ে পানি ঝরাতে হবে। ঘি, তেল একসঙ্গে গরম করে পেঁয়াজ বেরেস্তা করে আদা, রসুন, পেঁয়াজ বাটা দিয়ে ভুনে কবুতরের মাংস দিয়ে কষাতে হবে। এতে লবণ ও গোলমরিচ গুঁড়া দিতে হবে। ১০ মিনিট পর টক-মিষ্টি দই, পোস্তদানা বাটা, ১ টেবিল চামচ বাদাম বাটা, অর্ধেক গরম মসলা, জায়ফল-জয়ত্রী গুঁড়া ও আলুবোখারা দিতে হবে। মাংস ভালো করে ভুনে অল্প পানি দিয়ে সেদ্ধ করতে হবে। মাংস তেলের ওপর উঠলে মাংস উঠিয়ে রেখে সেই হাঁড়িতে ৩ কাপ গরম পানি দিয়ে চাল দিতে হবে। এবার বাকি গরম মসলা ও লবণ দিতে হবে। ফুটে উঠলে ২ টেবিল চামচ লেবুর রস দিতে হবে। চালের পানি কমে গেলে দুধের সঙ্গে ১ টেবিল চামচ বাদাম বাটা গুলিয়ে দিয়ে ১০ মিনিট দমে রাখতে হবে। কিছু মাওয়া গুঁড়া পোলাওয়ে দিতে হবে। এবার পোলাওয়ের হাঁড়ি থেকে কিছুটা পোলাও উঠিয়ে নিয়ে মাংস বিছিয়ে দিয়ে তার ওপর কিছু মাওয়া, গরম মসলার গুঁড়া, মিশ্রিত জাফরান দিতে হবে। এবার বাকি পোলাও দিয়ে কাঁচা মরিচ, মাওয়া, গরম মসলার গুঁড়া, জাফরান দিয়ে হাঁড়ির ঢাকনা ভালো করে বন্ধ করে ঢাকনার ওপর গরম পানির হাঁড়ি বসিয়ে মৃদু জ্বালে ১৫-২০ মিনিট রাখতে হবে। নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।