ইলিশ মাছের ডিমের পাতুরি

Posted in মাছ


উপকরণ : ইলিশ মাছের ডিম দেড়/দু কাপ্‌,  পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, সরিষার তেল দুই টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ৪-৫টি, আদা বাটা আধা চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, গোল মরিচ গুড়ো আধা চামচ, ধনিয়া গুড়ো ১ চা চামচ, জিরা গুড়ো ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, লাউপাতা ১০-১২ টি, লবণ পরিমাণমতো।



প্রস্তুত প্রণালি :
ইলিশ মাছের গোটা ডিম হালকা করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। একটি পাত্রে মাছের ডিম, তেল, পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ, বাটা ও গুড়ো মসলা সব নিয়ে মাখিয়ে ১৫ মিনিট রেখে দিন।
মাখানো মাছের ডিম একটি পরিস্কার , মাঝারি লাউপাতায় চারপাশ থেকে মুড়ে দিন। সেই পাতা টিকে আরেকটি লাউ পাতা দিয়ে আবার মুড়ে দিন।
এরপর একটি খোলা তাওয়াতে একটি পরিস্কার , বড় লাউ পাতা বিছিয়ে দিন। লাউ পাতাতে সামান্য একটু তেল মাখিয়ে নিন। সেই পাতার উপর মোড়ানো লাউপাতা গুলো সাবধানে বিছিয়ে দিন - যাতে খুলে না যায় । এক্ষেত্রে কেউ চাইলে টুথপিক বা সুতোর সাহায্য নিতে পারেন ( যদিও আমি এগুলো ছাড়াই করেছি )।
১০-১৫ মিনিট অল্প আঁচে রেখে দিন। এরপর এক পিঠ একটু শক্ত মনে হলে এবার আরেক পাশ উল্টিয়ে দিন।এরপর যখন মোড়ানো পাতা পোড়া পোড়া হয়ে আসবে, এবং ভিতরের মাছের ডিম একটু শক্ত হয়ে আসবে , তখন পাতুরি গুলো তাওয়া থেকে তুলে নিন। নিচের বিছানো পাতা টা ফেলে দিতে হবে ।কিন্তু মোড়ানো লাউপাতা গুলো খাওয়া যাবে , এবং এগুলো খেতে খুব মজা
এবার পাতুরি দিয়ে গরম গরম ভাতের সাথে অথবা শুধু নাস্তা হিসেবে খেতে পারেন দারুন সুস্বাদু ইলিশ মাছের ডিমের পাতুরি ।
বিশেষ দ্রষ্টব্য :
১) এখানে যে পরিমান বলা আছে , এতে ৬,৭ টা পাতুরি হবার কথা । ক্ষেত্র বিশেষে কেউ আরো ছোট সাইজের বেশি সংখ্যক পাতুরি বানাতে পারে, বা আরো বড় সাইজের কম সংখ্যক পাতুরি বানাতে পারে।
২) কেউ আর ও অল্প সময়ে এটা করতে চাইলে মাখানো ডিমটুকু সামান্য পানি দিয়ে অল্প আঁচে ৩/৪ মিনিট রান্না করে নিতে পারেন। এরপর লাউপাতায় মুড়ে তাওয়ায় দিতে পারেন।
৩) লাউপাতার পরিবর্তে কুমড়ো পাতা ও ব্যবহার করা যায়। এবং ইলিশের ডিমের পরিবর্তে অন্য যে কোনো মাছের ডিম ব্যবহার করতে পারেন। বিশেষ করে শিং মাছের ডিমের পাতুরি অত্যন্ত সুস্বাদু